শনিবার, অক্টোবর ১, ২০ ২২
ডেস্ক রিপোর্ট::
২১ সেপ্টেম্বর ২০ ২২
৪:৪০ পূর্বাহ্ণ

আদালতের নিষেধাজ্ঞা লংঘন
সিলেট সদরের টিলারগাঁওয়ে ফ্রান্স প্রবাসীর বাড়িতে হামলা-ভাংচুরের অভিযোগ

সিলেটে সদরের টিলারগাঁও কান্দিপাড়ায় ফ্রা›ন্স প্রবাসী শামীম মিয়ার বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে ।  বুধবার ভোররাত ৩টায় এ ঘটনা ঘটে। প্রতিপক্ষের লোকজন শামীমদের বাড়ির বাউন্ডারী দেওয়াল, ঘরের দরজা-জানালা ভাংচুর করে ব্যাপক ক্ষতিসাধন করে এবং বাড়ির মহিলাদের হুমকি ধামকি দেয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। আদালতের নিষেধাজ্ঞা লংঘন করে হামলার এ ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগে প্রকাশ, সিলেট সদরের এয়ারপোর্ট থানাধীন টিলারগাঁও কান্দিপাড়ার মৃত খুর্শিদ মিয়ার পুত্র শামীম মিয়া ফ্রান্স প্রবাসী। তার অপর চার ভাই মধ্যপ্রাচ্যের আমিরাত ও সৌদী আরবে থাকেন।

বাড়িতে তাদের মা ও স্ত্রীগন ছাড়া আর কেউই থাকেন না। এ সুযোগে প্রতিবেশি শমসের আলী ও তার লোকজন প্রবাসী শামীম মিয়াদের বাড়ির রাস্তা বন্ধ করে পাকা স্থাপনা নির্মান করতে চাইলে প্রবাসী শামীম মিয়ার মা আকলিমা তাতে বাঁধা দেন।

বাঁধা উপক্ষো করে সমসের আলীরা রাস্তা জবরদখলে মেতে ওঠলে শামীম মিয়ার মা আকলিমা বেগম এ বছরের ২১ জুলাই সিলেটের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি বিবিধ মোকদ্দমা (নং-২৬/২০২২) দায়ের করেন। আদালত উভয় পক্ষের বিরুদ্ধে কার্যবিধি ১৪৫ ধারায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেন।

এয়ারপোর্ট থানা পুলিশ ১৫৪ ধারায় নিষেধাজ্ঞার নোটিশ উভয় পক্ষের কাছে পৌঁছায়। আদালত ও পুলিশের নিষেধাজ্ঞা লংঘন করে সমসের আলীরা শামীমদের রাস্তা জবরদখল ও স্থপনা নির্মান তৎপরতা বন্ধ করেন নি। বাধ্য হয়ে প্রবাসী শামীমের মা আকলিমা বেগম সমসের আলীদের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে গত ১১ সেপ্টেম্বর সহকারী জজ সিলেট সদর আদালতে একটি স্বত্ব মোকদ্দমা (নং-৩১৪/২০২২) দায়ের করেন।

আদালত বিবাদী সমসের আলীর প্রতি সমন জারি করে কারণ দর্শাতে আদেশ দেন । সমন পেয়ে সমসের আলীরা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। তারা উভয় আদালতের নিষেধাজ্ঞা লংঘন করে মঙ্গলবার সকাল থেকে রাস্তার উপর স্থাপনা নির্মানের চেষ্টা চালায়। বাঁধার মুখে নির্মান কাজ চালাতে না পেরে গতকাল বুধবার ভোররাত ৩ টায় দলবল নিয়ে প্রবাসী শামীমদের বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা ও ভাংচুর চালিয়ে ব্যপক ক্ষতিসাধণ করে ।

এসময় তারা প্রবাসীর বাড়ির নারীদের হত্যা অপহরণ ও গুম করার হুমকি দেয় বলে অভিযোগে প্রকাশ। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

সিলেট এয়ারপোট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খান মাইনুল জাকির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন এ বিষয়ে তদন্ত ও অনুসন্ধান চলছে এবং পুলিশ শান্তি রক্ষায় তৎপর রয়েছে। প্রাথমিক তথ্যের সত্যতা পাওয়া গেলে পুলিশ আইনগত ব্যবস্থা নেবে বলেও জানান তিনি।

ফেইসবুক কমেন্ট অপশন
এই বিভাগের আরো খবর
পুরাতন খবর খুঁজতে নিচে ক্লিক করুন


আমাদের ফেসবুক পেইজ