শুক্রবার, জানুয়ারী ২৮, ২০ ২২
কমলগঞ্জ প্রতিনিধি::
১০ জানুয়ারী ২০ ২২
৮:৫১ অপরাহ্ণ

কমলগঞ্জে নৌকার অফিস ও এমপির গাড়িবহরে হামলার প্রতিবাদে আওয়ামীলীগের প্রতিবাদ সভা
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার মুন্সীবাজারে রহিমপুর ইউনিয়নের নৌকার প্রধান নির্বাচনী অফিস ও স্থানীয় সংসদ সদস্য সাবেক চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ ড. মো. আব্দুস শহীদের গাড়ি বহরে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের উদ্যোগে মাধবপুর বাজার ও পাত্রখোলা চা বাগানে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (১০ ডিসেম্বর) বিকাল ৪টায় মাধবপুর বাজারে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন মাধবপুর ইউনিয়ন পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি মো: আসিদ আলী। উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি আনোয়ার হোসেনের সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন মাধবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক লক্ষ্মী নারায়ণ সিংহ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মুমিন, মতিউর রহমান, মতুর চাষা, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল হামিদ, উপজেলা যুবলীগের সদস্য আব্দুল হান্নান, যুবলীগ নেতা আরিফ মিয়া, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা সুমন আহমেদ, কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল হাকিম, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন প্রমুখ। এর পর বিকাল সোয়া ৫টায় পাত্রখোলা চা বাগানে মাধবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগসহ অঙ্গ সহযোগি সংগঠনের উদ্যোগে পৃথক আরেকটি প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা ৬ বারের নির্বাচিত আওয়ামীলীগের দলীয় সংসদ সদস্য ও সাবেক চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ ড. মো. আব্দুস শহীদের গাড়ি বহরে সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে দায়ীদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবী জানান। উল্লেখ্য, কমলগঞ্জ থেকে শ্রীমঙ্গল শহরে ফেরার পথে উপজেলার মুন্সীবাজারে গত ২ জানুয়ারি রাত ১০টায় রহিমপুর ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে নৌকার প্রধান নিবার্চনী কাযার্লয় ও স্থানীয় সংসদ সদস্য উপাধ্যক্ষ ড. মো. আব্দুস শহীদের গাড়ি বহরে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে হামলা চালান আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী জুনেল আহমদ তরফদার ও তার কর্মীসমর্থক। হামলায় এমপি অক্ষত অবস্থায় থাকলেও দুপক্ষের সংঘর্ষে স্থানীয় এমপির গানম্যান, গাড়ি চালক ও ব্যক্তিগত একান্তসহকারীসহ ৭ জন আহত হন। এ ঘটনায় ৩৫ জনের নাম উল্লেখ করে আরো ৩০/৩৫ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে কমলগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন সংসদ সদস্যের ছোট ভাই ইমতিয়াজ আহমেদ বুলবুল। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় গত রোববার আদালতে হাজির হয়ে জামিনের প্রার্থনা করলে মামলার প্রধান আসামি আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র) জুনেল আহমেদ তরফদারসহ ৬ জনের জামিন আবেদন না-মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণ করেছে আদালত। কারাগারে প্রেরণ করা আসামীরা হলেন- উপজেলা আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক ও পরাজিত বিদ্রোহী প্রার্থী জুনেল আহমেদ তরফদার (৪৭), উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা হামিদুর রহমান চৌধুরী বাবর (৪৫), মিজানুর রহমান (৪৬), মুস্তাক আহমেদ মস্তান (৩৮), বেলাল মিয়া (৩৩) ও হারুনুর রশিদ (৩৮)। এর এ মামলায় এজাহারভুক্ত দুই আসামী রাসেল মিয়া (৩২) ও ওয়াহিদ মিয়া (৩৭) কে কমলগঞ্জ থানা পুলিশ গ্রেফতার করেছিল। আদালত সূত্রে জানা যায়, গত রোববার (৯ জানুয়ারি) দুপুরে মৌলভীবাজারের ৩নং আমলী আদালত (কমলগঞ্জ) এ এমপি ও নৌকার অফিসে ভাংচুরের মামলায় ২৮ জন আসামি জামিন আবেদন করেন। এ সময় ২২ জনের জামিন আবেদন মঞ্জুর করলেও মামলার প্রধান আসামিসহ ৬ জনের জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।
ফেইসবুক কমেন্ট অপশন
এই বিভাগের আরো খবর
পুরাতন খবর খুঁজতে নিচে ক্লিক করুন


আমাদের ফেসবুক পেইজ