শুক্রবার, ডিসেম্বর ২, ২০ ২২
শাল্লা (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি::
১৭ নভেম্বর ২০ ২২
৬:৫০ অপরাহ্ণ

সাংবদিকতার আড়ালে মাদক ব্যবসা

সুনামগঞ্জের শাল্লায় দীর্ঘদিন ধরে সাংবাদিকতার আড়ালে রমরমা মাদকের ব্যবসা করে আসছেন প্রীতম দাস। তিনি আলোকিত প্রতিদিন নামে একটি পত্রিকার শাল্লা প্রতিনিধি। উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে নিজস্ব লোকের মাধ্যমে এসব মাদক সাপ্লাই করতেন তিনি।

পরে গত ১৬ ই নভেম্বর সকালে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মাদক বিক্রির একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। এরপরই টনক নড়ে পুলিশ প্রশাসনের। ভিডিওতে দেখা যায় কথিত সাংবাদিক প্রীতম দাস কয়েকশ দেশীয় চোলাই মদের বোতল ৮০০ টাকা লিটার দরে বিক্রি করছেন।

এই ভিডিও প্রকাশের ১২ ঘন্টা পর মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১ টায় মিলন বাজার থেকে দিরাই থানা পুলিশের কাছে প্রীতম দাসসহ আরো দুইজন মাদক বিক্রেতা গ্রেফতার হয়েছে বলে জানান পুলিশের উপ-পরিদর্শক মিন্টু চৌধুরী ।

এই তিনজন হলেন শাল্লা উপজেলার চাকুয়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা গৌরাঙ্গ দাসের ছেলে প্রীতম দাস(২৬), দিরাই উপজেলার লসিমপুর গ্রামের দিলীপ দাস(৪০), লৌলারচর গ্রামের অসিম চন্দ্র দাস(২৭)। দিরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল আলম জানান, তিনজনকে মাদক, সাংবাদিকতার কার্ড ও বিভিন্ন সরঞ্জামসহ গ্রেফতার করা হয়েছে ।

এর মধ্যে প্রীতম দাস সাংবাদিক পরিচয় দিয়েছেন। তবে গ্রেফতাকৃতদের বুধবার সকালে সুনামগঞ্জ জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। শাল্লা উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি বকুল আহমেদ তালুকদার জানান, প্রীতম দাস দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় মাদকের ব্যবসা করে আসছে।

যার ফলে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীকে আমাদের প্রেসক্লাবের কোনো সদস্য করিনি। পরে নতুন আরেকটি প্রেসক্লাব গঠন হয়ে প্রীতম দাসকে সদস্য করেছে।

এই দায়ভার নতুন প্রেসক্লাবের ওপর বর্তায়। কারন তাঁর কোনো প্রতিষ্ঠানিক শিক্ষা নেই। তাই কিভাবে তাকে প্রেসক্লাবের সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করে এটা আমার জানা নেই।

ফেইসবুক কমেন্ট অপশন
এই বিভাগের আরো খবর
পুরাতন খবর খুঁজতে নিচে ক্লিক করুন


আমাদের ফেসবুক পেইজ