মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০ ২৪
বিজ্ঞপ্তি::
২৫ মে ২০ ২৪
৯:৪১ অপরাহ্ণ

মাসিক স্বাস্থ্য সচেতনা দিবস উপলক্ষে জিডিএফ’র দিনব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত

সিলেটে মাসিক স্বাস্থ্য সচেতনা দিবস উপলক্ষে প্যাসিব রিচার্জ এন্ড ডিজাইন ও আজিমুর রোকেয়া রহমান ট্রাস্টের যৌথ উদ্যোগে ২৫ মে শনিবার দুপুরে নগরীর জিন্দাবাজারস্থ গ্রীন ডিসএ্যাবল্ড ফাউন্ডেশন-জিডিএফ’র কার্যালয়ে এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

গ্রীন ডিসএ্যাবল্ড ফাউন্ডেশনের মহাসচিব ও নির্বাহী পরিচালক বায়জিদ খাঁন এর সভাপতিত্বে কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন প্যাসিব রিচার্জ এন্ড ডিজাইনের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ফাতিহা পলিন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ব্রীজ ফাউন্ডেশনের সহ প্রতিষ্ঠাতা স্বর্ণ জয়ী সরকার। জিডিএফ’র ব্যবস্থাপক স্বপন মাহমুদের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন শিক্ষক জয়দ্বীপ রায়, সুপারভাইজার রায়হান খান। সভায় ৩০ জন প্রতিবন্ধী সহ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন।

কর্মশালায় বক্তার বলেন, সাধারণত মেয়েদের জীবনে এই বিশেষ অধ্যায়ের শুরু হয় ৯ থেকে ১৩ বছরের মধ্যে। এই বিশেষ অধ্যায়টি ৪৫ থেকে ৫০ বছর পর্যন্ত চলমান থাকে। এ বিষয়ে পুষ্টিবিদরা বলেন, প্রতি মাসের এই বিশেষ সময়টুকুতে মেয়েদের খাদ্য তালিকায় বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া প্রয়োজন। এই রক্তক্ষয়ের ফলে ঘাটতি পূরণের জন্য খাদ্য তালিকায় রাখা প্রয়োজন প্রচুর পরিমাণে উন্নতমানের প্রোটিন, ভিটামিন সি, আয়রন এবং তরল জাতীয় খাবার। সেই সাথে মাছ, মাংস, ডিম, দুধ বা দুগ্ধ জাতীয় খাবারের পরিমাণ বাড়াতে হবে।

এ ছাড়াও খেতে হবে বিভিন্ন শস্য, বিচি জাতীয় খাবার, চাল-ডালের মিশ্রণে তৈরি করা খিচুড়ি, বিভিন্ন ধরণের বাদাম এ সময়ের জন্য বিশেষ উপযোগী খাবার। আয়রন জাতীয় খাবার যেমন- মাছ, মাংস, ডিম, দুধ বা দুগ্ধ জাতীয় খাবার যথেষ্ট পরিমাণে যারা খাদ্য তালিকায় রাখতে পারছেন না, তাদেরকে প্রোটিনের চাহিদা পূরণের জন্য উদ্ভিজ প্রোটিন জাতীয় খাবারের ওপর নির্ভর করতে হবে। এছাড়া দেশীয় মৌসুমি টক জাতীয় ফল হচ্ছে ভিটামিন সি’র আদর্শ উৎস।

বক্তারা বলেন, মাসিকের এই সময়টাতে অনেকেই বিভিন্ন রকম শারীরিক এবং মানসিক সমস্যার সম্মুখীন হন। যেমন-তলপেটে ব্যথা অনুভব করাসহ হাতে-পায়ে পানি চলে আসা, বিষ্ণনতা বোধ, মাংসপেশিতে ব্যথা, হঠাৎ করে রেগে যাওয়া, কোষ্ঠকাঠিন্য, ইউরিন ইনফেকশন, ইত্যাদি। তাই একটি ব্যালেন্সড খাদ্যতালিকা মাসের এই বিশেষ সময়টিতে প্রতিটি নারীকে করে তুলতে পারে স্বাস্থ্যসম্মত এবং অন্যান্য দিনের মতো স্বাভাবিক অনুষ্ঠানে স্যানেটারি নেপকিন বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ। শেষে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন ধর্মীয় শিক্ষক মাওলানা আনিস। বিজ্ঞপ্তি

ফেইসবুক কমেন্ট অপশন
এই বিভাগের আরো খবর
পুরাতন খবর খুঁজতে নিচে ক্লিক করুন


আমাদের ফেসবুক পেইজ