সোমবার, জুলাই ২২, ২০ ২৪
জাতীয় ডেস্ক::
২৬ মে ২০ ২৩
৬:০ ৫ অপরাহ্ণ

কেরানীগঞ্জে আ'লীগ-বিএনপির সংঘর্ষ, নিপুণ রায়সহ আহত ৪৫

রাজধানীর কেরানীগঞ্জের জিনজিরায় ঢাকা জেলা বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও ঢাকা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নিপুণ রায় চৌধুরীসহ উভয় পক্ষের অন্তত ৪৫ জন আহত হয়েছেন।

আজ শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে জিনজিরা বাস রোডে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় বেশ কয়েকটি গাড়িও ভাঙচুর করা হয়। তাৎক্ষণিকভাবে আহত নেতাকর্মীদের পরিচয় পাওয়া যায়নি। চলমান সরকারবিরোধী আন্দোলনের অংশ হিসেবে আজ ঢাকা মহানগর দক্ষিণসহ দেশের ৯ বিভাগের ১৮ জেলা ও মহানগরে জনসমাবেশ কর্মসূচি পালন করছে বিএনপি।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে ঢাকা জেলা বিএনপির উদ্যোগে জিনজিরায় বিএনপির কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ আয়োজন করা হয়। ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি খন্দকার আবু আশফাক এতে সভাপতিত্বে আজ সকাল ১০টায় এ সমাবেশ শুরু হওয়ার কথা ছিল। সংঘর্ষের পর পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পূর্বনির্ধারিত স্থানে সমাবেশ শুরু হয়। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী প্রধান অতিথি হিসেবে সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বেলা পৌনে ১১টার দিকে যুবদলের একটি মিছিল জিনজিরা ছাটগাঁও এলাকা থেকে বিএনপির সমাবেশস্থলে যাচ্ছিল। এ মিছিলটি দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে এলে দুই পক্ষের নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। একপর্যায়ে দুই পক্ষের উত্তেজিত নেতাকর্মীরা ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেন। এ সময় দুই পক্ষের নেতাকর্মীরা পাল্টাপাল্টি ধাওয়া ও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন।

এর মধ্যে বিএনপি নেতাকর্মীরা উত্তেজিত হয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে হামলা ও ভাঙচুর চালান। বিএনপির অভিযোগ, নিপুণ রায় চৌধুরী একটি মিছিল নিয়ে দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশে যাওয়ার পথে আওয়ামী লীগের কার্যালয় থেকে তাকে লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়। আওয়ামী লীগের অভিযোগ, হামলার উদ্দেশে নিপুণ রায় চৌধুরী পরিকল্পিতভাবে আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে হামলা চালিয়েছে।

এ সময় কার্যালয়ে থাকা আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা হামলা প্রতিহত করেছে। এ ঘটনায় জিনজিরার প্রবীণ নেতা আজহার বাঙ্গালী, কোন্ডা ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি আল আমিন মাহমুদসহ ১০-১৫ আহত হয়েছে বলেও অভিযোগ করেছেন দলটির নেতারা। ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আমিনুল ইসলাম বলেন, বিএনপির কিছু অতি উৎসাহী নেতাকর্মী আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে হামলা করেন। এর আগে সংঘর্ষে ও ইটের আঘাতে দুই পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হন। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে দ্রুত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ফেইসবুক কমেন্ট অপশন
এই বিভাগের আরো খবর
পুরাতন খবর খুঁজতে নিচে ক্লিক করুন


আমাদের ফেসবুক পেইজ