মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০ ২৪
বিজ্ঞপ্তি::
২৩ মে ২০ ২৪
১০ :৪২ অপরাহ্ণ

নাগরিক সেবা নিশ্চিত না করে ট্যাক্স বাড়ানোর লাফালাফি শুভ লক্ষণ নয়: কবীর সোহেল

নাগরিক সেবা নিশ্চিত না করে ট্যাক্স বাড়ানোর লাফালাফি শুভ লক্ষণ নয়। সিলেট নগরবাসী ট্যাক্স বিরোধী নয়। প্রস্তাবিত বর্ধিত অস্বাভাবিক ট্যাক্সের হার নির্ধারনের বিরুদ্ধে।

নগর কর্তৃপক্ষ যাঁদেরকে দিয়ে ‘এসেস’ করিয়েছেন এরা অনভিজ্ঞ, জনবিচ্ছিন্ন মেয়র বিরোধী চক্র। জনবিচ্ছিন্ন কতিপয় স্বার্থান্বেষী দিয়ে করারোপ করার পাঁয়তারা সিলেটবাসী মেনে নিতে পারেনা।

এমন আজগুবি অস্বাভাবিক করারোপ হলে সিলেটে অনৈক্যের আগুন জ্বলে উঠবে। নগর কর্তৃপক্ষ জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বেন। সিটি করপোরেশন অচল হয়ে পড়ার আশংকা রয়েছে। তাই অনতিবিলম্বে এই গণবিরোধী কর প্রস্তাব প্রত্যাহার করা হোক।

পুণরায় পর্যবেক্ষণ নিরিক্ষার মাধ্যমে বাস্তবতার সাথে সমন্বয়পূর্ণ যৌক্তিক কর প্রস্তাবের দাবী জানাচ্ছি। নগরীর ঐতিহাসিক কোর্ট পয়েন্টে জালালাবাদ যুব ফোরাম আয়োজিত মানববন্ধন পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশিষ্ট সাংবাদিক দৈনিক প্রভাতবেলা সম্পাদক কবীর আহমদ সোহেল উপরোক্ত কথা বলেন।

২৩ মে বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫ টা থেকে ৪৫ মিনিট ব্যাপি এ মানববন্ধনে নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডের নাগরিকরা বক্তব্য রাখেন। জালালাবাদ যুব ফোরাম নেতা পারভেজ আহমদের সভাপতিত্বে সমাবেশ ও মানবন্ধনে শিক্ষক সাংবাদিক চিকিৎসক আইনজীবি জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অংশ নেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কবীর সোহেল আরো বলেন, আগে সেবা নিশ্চিত করুন। পরে করারোপ করুন। মশার যন্ত্রণায় নগরবাসী অতিষ্ট, ময়লা ফেলার জায়গা নেই, বিদ্যুতের অচলাবস্থা, ড্রেনেজ সমস্যা, গণপরিবহন সংকট, নগরবাসী চিকিৎসা- শিক্ষার অধিকার বঞ্চিত। এসব সমাধানের কোন উদ্যোগ না নিয়ে ট্যাক্স নিয়ে এত সক্রিয়তা শুভ লক্ষণ নয়। প্রসঙ্গত সিলেট সিটি করপোরেশন নগরীর হোল্ডিং ট্যাক্স ২০০/৪০০ গুণ বাড়িয়ে নতুন করারোপের প্রস্তাবনা করে সম্প্রতি। এতে বিরুপ প্রতিক্রিয়া দেখা দেয় নগর জুড়ে।

ফেইসবুক কমেন্ট অপশন
এই বিভাগের আরো খবর
পুরাতন খবর খুঁজতে নিচে ক্লিক করুন


আমাদের ফেসবুক পেইজ